Frequently asked questions

beKarCash.com এ আপনি সর্বনিম্ন ৫০০ টাকার ক্রয় এবং সর্বনিম্ন ৫ ডলার বিক্রয় করতে পারবেন। এর কম ওয়েবসাইটে অর্ডার করা যায় না। তবে নতুনরা একান্ত প্রয়োজনে চ্যাটবক্সে কথা বলে সর্বনিম্ন মাত্র ১ ডলারও ক্রয়-বিক্রয় করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে আপনাকে ১০টাকা সার্ভিস চার্জ দিতে হবে।

Online এ যে কোন ধরনের লেনদেনের ক্ষেত্রে একটি বিশেষ সংখ্যা বা কিছু বর্ন ও সংখ্যার সমন্বয়ে একটি ID জেনারেট করা হয়। একে ওই মুহূর্তের লেনদেনের পরিচয় বা ট্রাঞ্জাকশন আইডি বলে। Skrill, Neteller, PM, Payeer, AdvCash, WebMoney বা অন্য যেকোনো Online Wallet এ USD Buy-Sell ও Transfer করার সময় স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটি ট্রাঞ্জাকশন আইডি জেনারেট হয়। এটি লেনদেনের প্রমান বা দলিল। পরবর্তীতে কোন সমস্যা হলে এটি খুবই কাজে লাগে। বাস্তবে আমরা যদি কোন জিনিস ক্রয়করি তবে মূল্য করার পর একটি মেমো / রিসিট আমাদেরকে দেয়া হয় যার একটি কার্বন কপি ও শপে থেকে যায়। এবং এর একটি নাম্বার থাকে। পরবর্তীতে প্রোডাক্টে কোন সমস্যা হলে ওই মেমো দেখিয়ে নিয়ম অনুযায়ী সমাধানের সুযোগ থাকে। Online ট্রাঞ্জাকশন আইডিও ঠিক তেমন।
বিকাশের ও রকেটের ক্ষেত্রে প্রতিবার টাকা Send বা Cashout করার সঙ্গে সঙ্গে মোবাইলে একটি Confirmation SMS আসে এবং সেখানে ঐ লেনদেনের যাবতীয় তথ্য থাকে। যেমন-
১. যে মোবাইলে টাকা পাঠালেন সেই নাম্বার।
২. টাকার পরিমান।
৩. একটি ট্রাঞ্জাকশন আইডি
৪. তারিখ ও সময়। ইত্যাদি।
এই ট্রাঞ্জাকশন আইডিটি bKash এ TrxID: 5H5IU32KF0 এভাবে থাকে। আর রকেটে TnxId: 4658254685 এভাবে থাকে।
আমাদের সাইটে নির্ধারিত বক্সে বিকাশ বা রকেটের ট্রাঞ্জাকশন আইডি সঠিকভাবে দিলেই হবে। তবে আপনি চাইলে যে মোবাইল নাম্বার থেকে টাকা Send বা Cashout করেছেন, সেই মোবাইল নাম্বারের শেষ ২ সংখ্যাও যুক্ত করে দিতে পারেন নিচের মত করে। যেমন :

5H5IU32KF0 / 82
5H5IU32KF0 - 82
5H5IU32KF0_82

সুবিধাঃ
ট্রাঞ্জাকশন আইডি সাধারণত Letters ও Digit মিলিয়ে হয়ে থাকে। এতে অনেকেই ইংরেজি বর্ন 'O' এবং শূন্য '0' এর পার্থক্য ধরতে পারেনা। আবার মোবাইল ভেদে ফন্ট বিভিন্ন হয় বলে অনেকের মোবাইলে U ও V এর পার্থক্য সহজে বুঝা যায় না। আবার 1 (one) ও I (আই) এই দুটির মধ্যেও সমস্যা হয়। কিন্তু মোবাইল নাম্বার লেখা অনেক সহজ ও দ্রুত হয়। এতে সময় বাঁচে ও নির্ভুল হয়। এমনকি এটা আপনার মুখাস্ত-ই থাকে। লেনদেনটি যাচাই করতেও বেশি সুবিধা হয়। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন।

একটি লেনদেন সম্পন্ন করতে সাধারণত ১০ মিনিটের বেশি লাগে না। এর বেশি সময় লাগার কথাও না। সাইটটি যেহেতু একা পরিচালনা করিনা তাই প্রতিটি লেনদেন আমরা সঠিক সময়েই করতে পারি। তারপরও কখনো কখনো ২/৩ ঘণ্টা লেগে যেতে পারে বিদ্যুৎ, নেট বা অন্য কোন সঙ্গত কারনে। মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় নানা কাজ থাকে সেখানে সংগত কারনে আটকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কাজেই আপনার যদি অতি জরুরি হয় তবে একটা ফোন দিয়ে জেনে নিবেন যে কতক্ষন লাগতে পারে। এতে আপনি নিশিত হতে পারবেন।

বিটকয়েন বা অন্য যে কোন ক্রিপ্টোকারেন্সি এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে ক্রয়/বিক্রয় সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। আমরা যারা উন্নত দেশের উদাহরণ দেই, তাদের বলছি শুনুন। পৃথিবীর সীমিত কয়েকটি রাষ্ট্র বিটকয়েন কে রাষ্ট্রীয়ভাবে গ্রহন করেছে। এদের সবাই অতিউন্নত ও উন্নত রাষ্ট্র। তবে পৃথিবীর অধিকাংশ অতিউন্নত, উন্নত, স্বল্প উন্নত বা উন্নয়নশীল রাষ্ট্র-ই বিটকয়েন বা কোন ধরনের ক্রিপ্টোকারেন্সিকে রাষ্ট্রীয়ভাবে গ্রহন করেনি। এর অনেক সুবিধার পাশাপাশি অসুবিধাও আছে। প্রথমতঃ একে জাতীয় আয় করের আওতায় আনা যায়না। আর রাষ্ট্র চলে মূলত করের টাকায়। এখন আপনিই বলুন আপনার দেশটি কিভাবে চলবে যদি দেশের অর্ধেক লেনদেনও ক্রিপ্টো কারেন্সীর মাধ্যমে হয়? দ্বিতীয়তঃ এর মারাত্মক ফ্লাকচুয়েশন। উন্নত রাষ্ট্র চাইলে ১০০ বিলিয়ন ডলারের একটা ঝুকি নিতেই পারে। কিন্তু বাংলাদেশের মত একটি রাষ্ট্রে যদি হঠাৎ এই পরিমাণ অর্থ কমে যায় তবে দেশের অবস্থা কি হতে পারে একটু ভাবুন!

তবে অনেকেই বলে থাকেন যে, বাংলাদেশে  সরকারিভাবে পরীক্ষামূলক BlockChain Technology শুরু করার জন্য একটি প্রস্তাব সংসদে উথাপিত হয়েছে স্বয়ং অর্থমন্ত্রীর মাধ্যমে। এছাড়া সামাজিক নিরাপত্তার স্বার্থে এই প্রযুক্তির বিকল্প নেই বলা হচ্ছে। বাংলাদেশে ব্লকচেইন প্রযুক্তির সুযোগ ও সম্ভাবনা সংক্রান্ত কয়েকটি লিঙ্ক উল্লেখ করা যেতে পারেঃ
আসছে ব্লকচেইন - দৈনিক কালের কণ্ঠ

মনে রাখবেন, BLOCKCHAIN বলতে মোটেও বিটকয়েন কে বুঝায় না বরং এটি এমন একটি প্রযুক্তি যা আর্থিক লেনদেন ছাড়াও ব্যবসা-বাণিজ্য, মেধাসত্ব, স্বাস্থ্যসেবা, মালিকানার তথ্য সংরক্ষণ ও আদান-প্রদানসহ ইন্টারনেটে সব ধরনের তথ্যের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা প্রদানকারী এক প্রযুক্তি কে বুঝায়। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও ব্লকচেইন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করার সময় এসেছে। তাই আগামী অর্থবছরে দেশে বক্লচেইন প্রযুক্তির পরীক্ষামূলক ব্যবহার হবে বাংলাদেশে। মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপে ব্লকচেইন সেবা দিয়ে আসছে আমাদের একটি দেশি কোম্পানি "ই-জেনারেশন"। তারাই এখন দেশে এই সেবা নিয়ে কাজ করবে।
আসল কথা হচ্ছে বিটকয়েন আর BLOCKCHAIN এক বিষয় নয়। বিটকয়েন হচ্ছে ব্লকচেইন প্রযুক্তির প্রথম আলোচিত/ সমালোচিত প্রয়োগ। অর্থাৎ  এটি ব্লকচেইন প্রযুক্তির মাধ্যমে পরিচালিত এক আর্থিক ব্যবস্থা।

হ্যাঁ, এটিই সব থেকে বড় বিষয়।

আমি নিশ্চিত যে আপনি প্রথমবারের মত আমাদের সাইটে লেনদেন করার বিষয়ে ভাবছেন আর ফ্রিলান্সিং জগতে আপনি সম্ভবত নতুন। নতুন ফ্রিলান্সারদের বিশ্বস্ত কাউকে পাওয়া খুব কঠিন হয়ে যায়। আবার লেনদেনের বেলায় তাদের ভয় থাকে সবচেয়ে বেশি। আর থাকাই স্বাভাবিক। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে লেনদেন করতে হলে কাউকে না কাউকে বিশ্বাস করতেই হবে! নইলে ত হবে না। কিন্তু কিভবে লেনদেন শুরু করলে "ধরা" খাওয়ার সম্ভাবনা খুব কম সেই সব টিপস আমি আপনাকে দিব এখন। এই টিপস গুলো আপনি যে কোন সাইটে লেনদেনের সময় প্রয়োগ করলে "ধরা খাওয়া" বলতে যা বুঝায় তা হবে না। ইনশাল্লাহ।

► লেনদেনের আগে নতুনদের জন্য কিছু কার্যকরী পরামর্শঃ
    ◈ আপনার পরিচিত ফ্রিল্যান্সিং করে এমন কারো সাথে সরাসরি লেনদেন করুন।
    ◈ যার মাধ্যমে ফ্রিলান্সিং এ এসেছেন সে যদি ফেস টু ফেস পরিচিত হয় তার সহায়তা নিন।
    ◈ অপরিচিত কারো সাথে লেনদেন করতে বাধ্য হলে সরাসরি দেখা করে লেনদেন শুরু করতে পারেন।
    ◈ উপরের ৩টি কৌশল ফেল করলে বাধ্য হয়েই অনলাইনে আমাদের সাইটের মত কোন একটার সাহায্য আপনাকে নিতে হবে।
    ◈ কেনার সময় শুধু সাশ্রয়ী রেট আর বিক্রয়ের সময় উচ্চ রেট দেখে সিদ্ধান্ত নিলে ভুল হতে পারে। বিবেচনা করুন দক্ষতার সাথে।

► যা অবশ্যই মনে রাখবেনঃ
অনেকেই নানা রকমের প্রতারণার বাক্স নিয়ে বসে আছে। তাদের সেই প্রতারণার কৌশল এতটাই আশ্চর্য যে প্রতারিত হবার পরও নিজেরে 'ভাগ্যবান' মনে করবেন এবং নিজেকে প্রতারিত মনেই হবে না! আপনি তার কৌশলের প্রশংসা করতে বাধ্য থাকবেন। তার কাছে নিজেকে ঋণী মনে হবে। কারন তার কাছে প্রতারিত হয়ে আপনি যে বিদ্যাটা অর্জন করবেন তা আপনার আর্থিক ক্ষতির পরিমাণের চেয়ে সেই বিদ্যার দাম অনেক বেশি মনে হবে আপনার কাছে! আমি কোন মিথ্যা বলছি না, সস্তা মজাও করছি না। এগুলো বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে বলছি। সুতরাং এমন অভিজ্ঞতার প্রয়োজন না থাকলে সাবধান থাকবেন।
আবার দুই চারজন শতভাগ সততার সাথেও লেনদেন করছে। কিন্তু সেই সঠিক মানুষটিকে খুজে বের করা একটু কঠিন। তাই যার সঙ্গেই লেনদেন শুরু করুন না কেন, আপনাকে খুব অল্প পরিমাণ ঝুকি নিয়ে লেনদেন শুরু করতে হবে। ৫ থেকে সর্বোচ্চ ১০ ডলারের মধ্যেই প্রথমে লেনদেন শুরু করতে পারেন। প্রয়োজনে অল্প পরিমানে বারবার অর্ডার করুন। এরপর বিশস্ততা তৈরি হলে ২০, ৩০, ৫০, ১০০ এভাবে আস্তে আস্তে বাড়াতে পারেন। মনে রাখবেন একজন SCAMMER ১০ ডলারের লোভ কোনভাবেই সামলাতে পারবে না। ভবিষ্যতে আপনি বড় লেনদেন করবেন আর সেটি সে মেরে দিবে, সেই অপেক্ষায় সে থাকবে না। সে নগত যা পাবে তাই মেরে দিবে। এমনকি ১০০/২০০ টাকা হলেও।

beKarCash.com এ আপনি সর্বনিম্ন ৫ ডলার বা ৫০০ টাকার সমপরিমাণ ডলার ক্রয় বিক্রয় করার অর্ডার করতে পারবেন। অর্থাৎ, সর্বনিম্ন ৫০০ টাকার ক্রয় এবং সর্বনিম্ন ৫ ডলার বিক্রয় করতে পারবেন। এর কম ওয়েবসাইটে অর্ডার করা যায় না। তবে নতুনরা একান্ত প্রয়োজনে চ্যাটবক্সে কথা বলে সর্বনিম্ন মাত্র ১ ডলারও ক্রয়-বিক্রয় করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে আপনাকে ১০টাকা সার্ভিস চার্জ দিতে হবে।

আমাদের সঙ্গে লেনদেন শুরু করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন


অনলাইন থেকে আপনার কষ্টার্জিত অর্থ নিরাপদে হাতে নিন যখন তখন।সকল বেকার ও অর্ধ-বেকার তরুণ ও তরুণীদের জয় হোক।
 “অনলাইনে আয় করি,
 বেকার মুক্ত দেশ গড়ি”

আমাদের সাইটে অন্য সাইটের চেয়ে কমপক্ষে ১ টাকা বেশি রেটে Skrill, Neteller,  Perfect Money , Payeer , WebMoney ও AdvCash USD সেল করুন! কিন্তু ক্রয় করার সময় অন্য সাইটের চেয়ে কমপক্ষে ১টাকা কমে ক্রয় করুন!! আমাদের সাইটের সাথে অন্য ১০টি সাইটের ক্রয় বিক্রয় রেট ভালভাবে যাচাই করে দেখুন।  আমারাই সেরা রেট দিচ্ছি।

রেট যাচাই পদ্ধতিঃ
রেট যাচাই করার সময় একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় খেয়াল রাখবেন। আর তা হল, আপনি তাদেরকে এজেন্ট নাকি পারসোনাল নাম্বারে টাকা পাঠাচ্ছেন। এজেন্ট নাম্বারে টাকা দিতে হলে আপনাকে Cash Out করতে হবে । এজেন্ট নাম্বারে যেকোনো পরিমাণ টাকা ক্যাশআউট কারার সময় আপনার একাউন্ট থেকে বাড়তি ১.৮৫% (হাজারে প্রায় ২০/-) টাকা অটোম্যাটিক সার্ভিস চার্জ কেটে রেখে দেয়। যে কারনে প্রতি ডলারের দাম  আরও প্রায় ২টাকা বেশি রেট পড়ে যায়।  আমরা পারসোনাল নাম্বারে টাকা নিয়ে থাকি। তাই আপনাকে বাড়তি কোন চার্জ দিতে হচ্ছে না। রেট যাচাই করার সময় এই বিষয়টি মাথায় রাখবেন।
রেট যাচাই করার জন্য গুগলে সার্চ দিন। দেখবেন অনেক ভাল ও মন্দ দুই ধরনের সাইটই চলে আসবে। এদের মধ্যে কোনটা আসলে ভাল আর কোনটা স্ক্যাম তা দেখে বুঝার তেমন কোন উপায় নাই। তবে রেট যাচাই করে নিতে পারেন সহজেই। এছাড়া আগে যেসব সাইটে লেনদেন করেছেন তার সঙ্গে মিলিয়ে দেখে নিতে পারেন।
কিছু সাইট আছে যারা অনেক বেশি রেটে কিনে কিন্তু সেল করে অনেক অনেক কম রেটে। তারা আসলে স্ক্যামারস। তাদের থেকে সাবধান থাকবেন। এছাড়াও নানা রকমের স্ক্যামার আছে যা দেখে চেনার উপায় নাই। তাই এখন পর্যন্ত আপনি যেসব সাইটে লেনদেন সঠিকভাবে করতে পেরেছেন সেই সব সাইটের সাথে তুলনা করবেন।

এছাড়া USD  থেকে USD exchange করার সময় তুলনামুলক ২% থেকে ৫% বেশি সাশ্রয়ী রেটে এক্সচেঞ্জ করুন শুধুমাত্র BekarCash.com এ! সুতরাং আর ভাবনা কেন? যখনি প্রয়োজন, তখনি সেরা রেটে বাই সেল ও এক্সচেঞ্জ করুন। আমাদের সঙ্গে লেনদেন শুরু করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন।


আপনারা জানেন যে Skrill ও Neteller এ এখন দুই ধরনের USD দেখা যায়। যদি কেউ Mastercard দিয়ে Skrill বা Neteller এ ডিপোজিট করে থাকে তবে সেই USD কোন সাইটে ডিপোজিট করতে পারবেন না। এমনকি কোন ধরনের PTC/ Revenue Sharing সাইটেও মার্কেটিং করার জন্য Adpack বা বিজ্ঞাপন ক্রয় করতে পারবেন না। এক কথায় কোন সাইটেই ডিপোজিট বা পেমেন্ট করতে পারবেন না। শুধু Skrill To Skrill বা Neteller To Neteller লেনদেন করতে পারবেন অথবা ব্যাঙ্কে উইথড্র দিতে পারবেন। এই ধরনের USD কেই আমাদের সাইটে Skrill (M) ও Neteller (M) বলা হয়েছে। এই ডলারের দাম তুলনা মূলক অনেক কম। এখানে 'M' দ্বারা Mastercard বুঝানো হয়েছে।
আর শুধু Skrill বা Neteller দ্বারা রেগুলার Dollar বুঝানো হয়েছে যা দিয়ে আপনি অনলাইনে সব ধরনের কাজ করতে পারবেন। এর দাম তুলনা মূলক বেশি। আশাকরি বিষয়টি ভালভাবে বুঝতে পেরেছেন।

অনলাইনে ফ্রি-ল্যান্সিং করা যায় হাজার উপায়ে। কারো পক্ষে সেই উপায় গুলোর ১% আয়ত্ত করাও সম্ভব না। আমরা একটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকি। আর তা হল Web Development & Wordpress Development। এছাড়া Youtube ও Graphics Design সম্পর্কে টুকটাক পরামর্শ দিয়ে থাকি। আর Market Palce গুলোর মধ্যে Fiverr.com ও Freelancer.com এ কাজের পরামর্শ দিয়ে থাকি।


মনে রাখবেন, মার্কেট প্লেসে ঢুকলেই আয় করা যায় না। বরং কমপক্ষে একটি কাজের যথেষ্ট অভিজ্ঞতা ও যোগ্যতা অর্জন করে মার্কেট প্লেসে আসতে হয়। আমরা প্রফেশনাল Web Development কোর্স করিয়ে থাকি। আগ্রহী হলে এখানে ক্লিক করুন। চাইলে আমাদের ওয়েবসাইটের চ্যাট বক্সেও নক দিতে পারেন।

এক কথায় ‘নাই’। দুনিয়ার কোথাও নাই।
তবে যাদের শিক্ষা নাই, দক্ষতা নাই তারা কি বেঁচে থাকার জন্য কিছু করছে না? হ্যাঁ করছে। এমন অনেক কাজ আছে যার জন্য কোন অভিজ্ঞতা বা পূর্ব শিক্ষার দরকার হয় না। তবে সেই কাজের কতটুকু দাম বা মূল্য আছে তা যে কেউ অনুমান করতে পারে। এই ধরনের কাজ সারাদিন করে মাসে ২০ থেকে ৫০ ডলারের বেশি ইনকাম করতে পারবেন না। আর এই ইনকামে যদি আপনার আপত্তি না থাকে তবে আমাকে বলতে পারেন। আমি আপনাকে সার্বিক হেল্প করবো।



মনে রাখবেন, ভাগ্য আপনার ভাগ্যকে পরিবর্তন করতে পারবে না। একমাত্র আপনার কঠোর পরিশ্রমই আপনার ভাগ্যকে পরিবর্তন করতে পারে। কারন আমরা সবাই জানি- যে স্বয়ং চেষ্টা করে, স্বয়ং স্রস্টা তার সহায় হন।
অনলাইন থেকে আপনার কষ্টার্জিত অর্থ নিরাপদে হাতে নিন যখন তখন।সকল বেকার ও অর্ধ-বেকার তরুণও তরুণীদের জয় হোক।

 “অনলাইনে আয় করি,
 বেকার মুক্ত দেশ গড়ি”


ফ্রিল্যান্সিং করে অনলাইন থেকে টাকা রোজগারের রয়েছে হাজারো উপায়। একেক জন একেক পথ বেছে নেন তার রুচি, দক্ষতা ও আগ্রহ থেকে। তবে কাজ ভিন্ন ভিন্ন হলেও লক্ষ্য কিন্তু সবারই এক! আর তা হল ভাল আয় করা। আমরা চাই অনলাইনে আপানার উপার্জনের পথ সুন্দর হক, সফল হোক।

  Make Money For Free!

EasyHits4U SolidTrustPay, VISA Paying
GPT Planet Skrill, Payeer, Neteller Paying
HeedYoux Paypal, Payeer Paying
YouGetProfit Payeer, Perfect Money Paying
Paidverts Neteller, Skrill Paying